শনিবার ২৭শে জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০ Saturday 10th June 2023

শনিবার ২৭শে জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০

Saturday 10th June 2023

প্রচ্ছদ প্রতিবেদন

গাছ না কাটার আইনের তোয়াক্কা করে না সিটি কর্পোরেশন

২০২৩-০৫-১০

দৃকনিউজ প্রতিবেদন

         

সম্প্রতি তীব্র গরমে নগরবাসীর নাভিশ্বাস অবস্থা। অসহনীয় গরমে মানুষ থেকে শুরু করে প্রাণীকুলের শেষ আশ্রয় স্থল গাছ-পালা। তবে উন্নয়নের নামে বৃক্ষ নিধনসহ প্রাণ-প্রকৃতি বিনাশকারী প্রকল্প হাতে নেয়া যেন সিটি কর্পোরেশনের খুবই প্রিয় কাজ।  বহুদিন ধরেই রাজধানীর ধানমন্ডিতে সড়ক বিভাজনের মাঝের গাছগুলো কাটা হচ্ছিল। নিয়ম কানুনের তোয়াক্কা না করেই দেদারসে এসব গাছ একদিকে যেমন কাটা হচ্ছে জবাবদিহিতাহীন ভাবে,  অন্যদিকে বাড়ছে তাপমাত্রা। 

 

পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে গাছ না কেটে এবং বিশেষ প্রয়োজনে গাছের গুড়িসহ উঠিয়ে অন্য জায়গায় গাছকে স্থানান্তর করা হয়। কিন্তু বাংলাদেশে সেসবের কিছুই করা হচ্ছে না। 

 

ঘটনার শুরু জানুয়ারি মাসে। হঠাৎ করেই রাতের অন্ধকারে রাজধানীর জিগাতলা থেকে শঙ্কর পর্যন্ত সড়ক বিভাজনের মাঝের গাছগুলো কেটে ফেলা শুরু হয়। কোন প্রকল্পের আওতায় এসব গাছ কাটা হচ্ছে, গাছ স্থানান্তরের জন্য বন বিভাগের অনুমতি নেয়া হয়েছে কিনা কোন প্রশ্নের উত্তরই পাওয়া যাচ্ছিল না। 

 

গত ২৪ জানুয়ারি, দৃকনিউজে এই বিষয়ে সংবাদ প্রকাশিত হবার পর সাময়িকভাবে গাছ কাটা বন্ধ হয়। পরে গাছ রক্ষার দাবিতে ৩০ জানুয়ারি মানববন্ধন করেন পরিবেশ আন্দোলনের কর্মীরা। এসব কারণে বেশ কিছুদিন গাছ কাটা বন্ধ থাকলেও গত ৩০ এপ্রিল রাত থেকে আবারও রাতের অন্ধকারে অনেকটা চুরি করে এসব গাছ কাটতে থাকে প্রশাসন। শঙ্কর পেরিয়ে রাজধানীর সাত মসজিদ রোডের সড়ক বিভাজনের গাছগুলোও একে একে কাটা শুরু হয়। 

 

গাছ কাটার প্রতিবাদে আবারও মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করেছেন নাগরিক সমাজ। এসব নিয়ে গত ৮ই মে রাজধানীর প্রেসক্লাবে ‘সাতমসজিদ সড়ক গাছ রক্ষা আন্দোলন ব্যানারে’ একটি সংবাদ সম্মেলন করেছেন স্থানীয় বাসিন্দা ও সচেতন নাগরিকরা।

 

সংবাদ সম্মেলনে নির্বিচারে এসব গাছ কাটার প্রতিবাদ জানিয়েছেন বক্তারা। একই সাথে অতি দ্রুত গাছ কাটা বন্ধ করার দাবী জানিয়েছেন তারা। সাতমসজিদ সড়ক গাছ রক্ষা আন্দোলনের সমন্বয়ক আমিরুল রাজীবের সঞ্চালনায় লিখিত বক্তব্য তুলে ধরেন লেখক পাভেল পার্থ। 

 

নিয়ম না মেনে এবং নাগরিক দাবী উপেক্ষা করে নির্বিচারে এসব গাছ কাটার কারণ জানতে চেয়ে দৃকনিউজের পক্ষ থেকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী জনাব সালেহ আহমেদের সাথে যোগাযোগ করা হলে নতুন করে আর কোন গাছ কাটা হবে না বলে জানান তিনি। গাছ কাটা এবং স্থানান্তর করার ক্ষেত্রে বন বিভাগের অনুমতি নেয়া হয়নি বলেও স্বীকার করেন তিনি। 

 

শুধু ধানমন্দির জিগাতলা থেকে সাতমসজিদ সড়ক নয়, নগরে প্রাণের বসবাস টিকিয়ে রাখতে ঢাকা শহরের কোন গাছই যেন না কাটা, স্থানীয় প্রজাতি দিয়ে প্রতিস্থাপন করা, গাছ কাটার ক্ষেত্রে নিয়ম কানুন মেনে চলা, নগরবাসীর মতামত নেয়া, প্রাণ-প্রকৃতি রক্ষা করে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড পরিচালনার দাবী জানিয়েছেন আন্দোলনকারীরা। সংবাদ সম্মেলন শেষ ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়রের বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন তারা। একই সাথে দাবী না মানা হলে লাগাটার কর্মসূচি চলবে বলে জানিয়েছেন ‘সাতমসজিদ সড়ক গাছ রক্ষা আন্দোলনকারীরা।